সেনাবাহিনীকে দুর্বল করতে পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহ

nizami
স্টাফ রিপোর্টার :
পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহে সেনা কর্মকর্তাদের হত্যাকাণ্ডকে পরিকল্পিত উল্লেখ করে জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামী বলেছেন, এর পেছনে ভারতের গভীর ষড়যন্ত্র রয়েছে। নিজামীর দাবি, ২০০০ সালে বিডিআরের কাছে পরাজিত হয়েছিল বিএসএফ (ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী)। পরাজয়ের সেই প্রতিশোধ নিতেই নয় বছর পর ২০০৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি বিডিআরের হত্যাযজ্ঞ চালায় ভারত। এ ছাড়া ভারত চায় বাংলাদেশে ফেনসিডিল পাচার করতে। সে কারণেই বিডিআরকে ধ্বংস করা হয়েছে। আর সেনাবাহিনীকে দুর্বল করার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বে আঘাত হানা হয়েছে। এভাবেই এক ঢিলে দুই পাখি মারা হয়েছে।
বিডিআর হত্যাকাণ্ডের এক বছর উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন নিজামী।
সরকারের বিরুদ্ধে সারা দেশে হিংসার আগুন ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ করেন মতিউর রহমান নিজামী। তিনি বলেন, এ কারণেই সারা দেশে জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তার অভিযান চলছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...