মুরাদনগরে সন্ত্রাস বিরোধী সভায় নারী নির্যাতনকারী ও ডাকাত কাউছারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী

হাবিবুর রহমান,স্টাফ রিপোর্টার মুরাদনগরঃ
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাংগরা ডাক বাংলো মাঠে বৃহস্পতিবার বিকেলে ইউনিয়ন পুলিশিং কমিটির এক সন্ত্রাস বিরোধী সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে এলাকাবাসী, ঐ এলাকার ত্রাস ও নারী নির্যাতনকারী হিসেবে খ্যত ডাকাত কাউছার মিয়াকে গ্রেফতার করায় পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান এবং তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি উদাত্ব আহবান জানান। ইউপি চেয়ারম্যান মোকবল হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহকারী পুলিশ সুপার (শিক্ষানুবিশ) মাহফুজুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আমিরুল আলম, ব্যবসায়ী আবদুল হাকিম সওদাগর, সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবদুল হাই মোশারফ, আওয়ামীলীগ সভাপতি আবু ইসহাক রাজু, সেক্রেটারী সানিউজ্জামন শওকত, ছাত্রলীগ নেতা বাবলু আলী খান, আবু বকর সবুজ, ডাক্তার বিল্লাল হোসেন ও ছগির আহমেদ প্রমুখ। বক্তরা অত্র ইউনিয়নকে আধুনিকায়ন করার লক্ষে নারী নির্যাতনকারী, ডাকাত, মাদক ব্যবসায়ী, চোর ও ছিনতাইকারী মুক্ত রাখতে দলমত নির্বিশেষে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। উল্লেখ্য, নারী নির্যাতনকারী কাউছার মিয়া গ্রেফতার হওয়ায় এলাকায় সস্তি ফিরে আসে। পুলিশী আতংকে বর্তমানে তার সহযোগীরাও গা-ঢাকা দিয়েছে। তবে ধৃত কাউছারকে সকল প্রকার অভিযোগ থেকে মুক্ত রাখতে একটি বিশেষ মহল তদবির করছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানায়, নরপশু হিসেবে খ্যাত কাউছার মিয়া ও তার বাহিনীর অত্যাচারে ৪টি পরিবার তাদের স্ত্রী ও মেয়ে নিয়ে এলাকা ছেড়ে চলে গেছে। তাকে গ্রেফতার করায় মনে হয়, দেশ নতুন করে স্বাধীন হয়েছে।
মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আমিরুল আলম জানান, নারী নির্যাতনকারী হিসেবে খ্যাত ধৃত কাউছার মিয়াকে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তবে সে ডাকাতি করার পূর্বে নারীদের অজ্ঞান করে ধর্ষন করার অসংখ্য অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...