চলে গেলেন জ্যোতি বসু

juti boshu
কুমিল্লাওয়েব ডেস্ক :
জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে বেশ কয়েকদিন থেকে অবশেষে রোববার দুপুরে চলে গেলেন জ্যোতি বসু।মৃত্যু কালে পশ্চিমবঙ্গের সাবেক এ মুখ্যমন্ত্রীর বয়স হয়েছিলো ৯৫ বছর।সক্রিয় রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়া জ্যোতি বসু এ মাসের শুরু থেকে ছিলেন কলকাতার এএমআরআই হাসপাতালে। অবস্থার অবনতি ঘটলে শনিবার চিকিৎসকরা হাল ছেড়ে দেন। রোববার দুপুর বাংলাদেশ সময় সোয়া ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়।রোববার দুপুর ১টার দিকে জ্যোতি বসুর রাজনৈতিক সহকর্মী ও বামফ্রন্টের সমন্বয়ক বিমান বসু সাংবাদিকদের বলেন, “আমি দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে জ্যোতি বসু আর আমাদের মাঝে নেই।”
জ্যোতি বসুর মৃত্যুতে মনমোহন সিং এবং কংগ্রেস প্রধান সোনিয়া গান্ধী শোক প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ভারত সফরের সময় জ্যোতি বসুর খবর নেন। কমিউনিস্ট নেতার মৃত্যুতে তিনি শোক প্রকাশ করেন।
জ্যোতি বসুর পৈত্রিক নিবাস বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জে। অবিভক্ত ভারতে কমিউনিস্ট পার্টির নেতা হিসেবে বাংলাদেশে শ্রমিক আন্দোলন গড়ে তোলার ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছিলেন তিনি; মুখ্যমন্ত্রী হয়ে বাংলাদেশেও বেশ কয়েকবার এসেছিলেন। টানা ২৩ বছর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলানোর পর অসুস্থতার কারণে ২০০০ সালে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের হাতে দায়িত্ব ছেড়ে দেন জ্যোতি বসু। এরপর থেকে শারীরিক অবস্থা নিয়ে টানাপোড়েনের মধ্য দিয়েই তাকে চলতে হয়।
জ্যোতি বসুর জন্ম ১৯১৪ সালের ৮ জুলাই কলকাতায়। উচ্চ শিক্ষার জন্য যুক্তরাজ্যে গিয়ে তিনি কমিউনিস্ট আন্দোলনের সংস্পর্শে আসেন। ভারত ফিরে কমিউনিস্ট পার্টির সঙ্গে পুরোপুরি যুক্ত হন তিনি।জ্যোতি বসু ১৯৪৬ সালে প্রথম প্রাদেশিক আইন সভার সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৫৭ সাল থেকে ‘৬৭ সাল পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধান সভার বিরোধী দলের নেতার দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ‘৬৭ সালে পশ্চিমবঙ্গে যুক্তফ্রন্ট সরকারের উপমুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে প্রথম শপথ নেন ১৯৭৭ সালের ২১ জুন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...