কুমিল্লায় স্বাস্থ্য সহকারী ও প্রাথমিক শিক্ষক পদে ‘নিয়োগ বাণিজ্যের’ অভিযোগ

কুমিল্লা প্রতিনিধি :
সদ্য সমাপ্ত কুমিল্লা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগে ‘স্বাস্থ্য সহকারী’ ও জেলার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সমূহে ‘সহকারী শিক্ষক’ নিয়োগের নামে ব্যাপক অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল এখনো প্রকাশিত না হলেও মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নীতে ইতিমধ্যে মাঠে নেমে পড়েছে প্রতারক চক্র। ওই নিয়োগ বাণিজ্য চক্রের সাথে জেলার অধিকাংশ উপজেলারই ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতাকর্মী জড়িত রয়েছে বলে জানাগেছে। স্বাস্থ্য সহকারী নিয়োগে ৩ লাখ থেকে ৫ লাখ টাকা এবং সহকারী শিক্ষক নিয়োগে দেড় লাখ থেকে ২ লাখ টাকা পর্যন্ত অগ্রিম হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে বলে জানাগেছে। তবে জেলা সিভিল সার্জন এবং জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অবশ্য বলেছেন ভিন্ন কথা। ওই প্রতারনা কিংবা নিয়োগ বাণিজ্যের সাথে অফিসের কোন কর্মকর্তা ও কর্মচারী জড়িত নেই বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ওই দু’শীর্ষ কর্মকর্তা।
জানা যায় এ বছর জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের অধীন স্বাস্থ্য সহকারী ২৯৩ টি পদের বিপরীতে ১৩ হাজার ৩২৮ জন পরীক্ষায় অংশ নেয়। ওই লিখিত পরীক্ষার ফলাফল এখনো প্রকাশিত না হলেও চাকুরী দেবার শতভাগ নিশ্চয়তায় প্রতারক চক্র চাকুরী প্রার্থীদের নিকট থেকে ৩ লাখ টাকা থেকে ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে জানাগেছে।এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার বিকেলে কুমিল্লা সিভিল সার্জন ডাঃ ফয়েজ আহাম্মদ খান জানান চাকুরী প্রার্থীদের নিকট থেকে অর্থ আদায়ের সাথে অত্র অফিসের কোন কর্মকর্তা ও কর্মচারী জড়িত নেই,বাহিরে কেউ অর্থ হাতিয়ে নীলে তাঁদের কিছুই করার নেই। অপর দিকে জেলার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও অনুরুপ নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। গত ৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ওই নিয়োগ পরীক্ষায় জেলার ৪৫২ টি পদের বিপরীতে ২৩ হাজার ৫৯৫ জন লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেয়। সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ দিতে প্রতারক চক্র দেড় থেকে ২ লাখ টাকা আগাম হাতিয়ে নিচ্ছে বলে জানাগেছে।এ ব্যাপারে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সুমল কুমার বড়–য়া জানান নিয়োগ বাণিজ্যের বিষয়ে অত্র অফিসে কোন তথ্য নেই,তাঁর অফিসের কোন কর্মকর্তাও এর সাথে জড়িত নেই।ওই নিয়োগ বাণিজ্য প্রক্রিয়া ও অর্থ হাতিয়ে নেয়ার চক্রের মধ্যে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা শীর্ষে রয়েছে বলে অনুসন্ধানে জানাগেছে। এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা সিভিল সার্জন অফিসের একটি সূত্র জানায় লিখিত পরীক্ষার ফলাফল এখনো প্রকাশ না হলেও ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ ও স্থানীয় পর্যায়ের নেতাদের নিকট থেকে আসা তদবীরের পাশাপাশি স্বাস্থ্য বিভাগ এবং বিভিন্ন মন্ত্রনালয় থেকেও পছন্দের প্রার্থীর জন্য তদবীর আসছে, প্রার্থীদের নিয়োগ চুড়ান্ত এবং নিয়োগ পত্র প্রেরণ পর্যন্ত সেই তদবীরের প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে বলেও জানাগেছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...