প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করার কথা ভেবে দেখে জানাবেন বঙ্গবন্ধুর খুনিরা

কুমিল্লাওয়েব ডেস্ক :
“মৃত্যু পরোয়ানায় স্বাক্ষরের পর থেকে সাত দিনের মধ্যে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন জানাতে হবে।” সোমবার কারা অধিদপ্তরে কারা মহাপরিদর্শক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আশরাফুল ইসলাম খান সাংবাদিকদের একথা বলেন
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিরা প্রাণভিক্ষার আবেদন জানালে তা মৃত্যু পরোয়ানা স্বাক্ষরের সাত দিনের মধ্যেই করতে হবে বলে ।
মহাপরিদর্শক বলেন, মৃত্যু পরোয়ানা জানানোর পর প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করবেন কিনা এব্যাপারে তাদের কয়েকজন ভেবে দেখার কথা বলেছেন। রোববার মৃত্যু পরোয়ানা পাওয়ার পর বন্দিদের জানিয়ে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে বলে দেওয়া হয় তারা সাত দিনের মধ্যে প্রাণভিক্ষার আবেদন করতে পারবেন।”
বন্দিদের এতে বিচলিত হতে দেখা যায়নি বলে জানান বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আশরাফুল।
ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, রোববারই বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রাপ্ত ৫ আসামীর কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদনের জন্য সাদাকাগজ এবং কলম দেওয়া হয়েছে। এব্যাপারে সোমবার পর্যন্ত তারা কোনো বক্তব্য দেননি।
গত ২২ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায়ের কপি পেয়ে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জানিয়েছিলেন, ২১ জানুয়ারির আগেই রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন দায়ের করবেন তারা। ওইদিন মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌসুলি আনিসুল হক জানিয়েছিলেন, আসামিরা রিভিউ আবেদন করলে মৃত্যু পরোয়ানা জারি হলেও ফাঁসি কার্যকর স্থগিত থাকবে।
অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম জানিয়েছিলেন, বিচারিক আদালত মৃত্যুপরোয়ানা জারির ২১ দিনের আগে নয়, ২৮ দিনের পরে নয়- এই সময়ে ফাঁসি কার্যকর হবে।
রোববার ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ আবদুল গফুর মৃত্যু পরোয়ানায় স্বাক্ষর করে ওই পরোয়ানা পাঠিয়ে দেন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে। সেখানেই রয়েছেন মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত পাঁচজন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...