মুরাদনগরে টমেটো চাষে কৃষক মকবুলের সাফল্য

স্টাফ রিপোর্টার :
মুরাদনগরের রাজনগর গ্রামের মাঠে হাইব্রিড টমেটো ‘মিন্টু’ চাষ করে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে কৃষক মকবুল হোসেন। টমেটোর পাশাপাশি আলাভী শসা ও ডায়না লাউ চাষ করে এবার কৃষক মকবুল হোসেন লাভ করেছেন ১ লাখ ২০ হাজার টাকা। কৃষক মকবুল হোসেন টিটু তার সফলতার কথা বলতে গিয়ে জানান, লালতীর কোম্পানির মাঠ কর্মকর্তাদের অনুপ্রেরণা ও নির্দেশনা মোতাবেক যথা নিয়মে চারা করেন এবং ০২ শতক জমি চাষ করেন। চারা রোপণের ৬০/৬৫ দিনের মধ্যে গাছ থেকে পাকা টমেটো সংগ্রহ করা শুরু হয়। আগাম বাজারজাত করে ভাল অর্থ উপার্জন করা সম্ভব । বাজারের প্রচলিত অন্যান্য আগাম টমেটোর মধ্যে মিন্টু হাইব্রিড টমেটো ন্যূনতম ১৪/১৫ দিন আগে আসে এবং ফলন বেশি, দেখতে সুন্দর, রং আকর্ষণীয়। এতেকরে এলাকার নতুন চাষী টমেটো চাষে আগ্রহ প্রকাশ করেন। মকবুল হোসেন টিটুকে দেখে এলাকায় সবজি চাষীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ইতিমধ্যে একজন প্রফেসর এবং একজন এনজিও অফিসার লালতীরের বিভিন্ন হাইব্রিড সবজি চাষ করা শুরু করেছে। তিনি আরও জানান, ৪৫ শতক অন্য কোম্পানির আগাম টমেটোর চাষ করে অনেক গাছ মারা গেছে, ফলন তুলনামূলক কম। মিন্টু হাইব্রিড টমেটো তাকে আশানুরূপ ফলন দিয়েছে, গাছও মরেনি। মিন্টু তার সফলতার কথা বলতে গিয়ে আরও জানান, টমেটো চাষের আগে ৪৫ শতক জমিতে লালতীরের আলাভী শসা ও হাইব্রিড লাউ ডায়না চাষ করে প্রায় দেড় লাখ টাকার লাউ ও শসা বিক্রি করেছি। এতে তার খরচ হয় ৪০ হাজার টাকা। বিক্রি হয় ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা। নিট মুনাফা করেন ১ লাখ ২০ হাজার টাকা। কৃষকদের মধ্যে উৎসাহ দিতে সম্প্র্রতি অনুষ্ঠিত হয় সবজি প্রদর্শনী মাঠদিবস অনুষ্ঠান।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...