চুক্তি ছাড়াই শেষের দিকে বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন

world
স্টাফ রিপোর্টার :
কোপেনহেগেনে চলা বহুল আলোচিত জাতিসংঘ বিশ্ব জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলন চুড়ান্ত অধিবেশনের মধ্য দিয়ে আজ (শুক্রবার) শেষ হচ্ছে। বৈশ্বিক উষ্ণতা হ্রাসে বিশ্বনেতাদের সামনে আজ একটি চুক্তি উপস্থাপন করার কথা থাকলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে, এই চুক্তি তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা হ্রাসে তেমন কোনো ভূমিকা রাখতে পারবে না।(বিবিসি)।
কোপেনহেগেন জলবায়ু সম্মেলনে চুক্তির মূল বিষয় গ্রিনহাউজ গ্যাস নির্গমন হ্রাসের মাত্রা এবং সময়সূচি নিয়ে কোনও চুক্তি ছাড়াই রাত্রিকালীন বৈঠক শেষ হয়েছে। কার্বন নির্গমন বিষয়টির সমাধান নিয়ে অংশগ্রহনকারী দেশগুলোর মধ্যে মতপার্থক্য ও দৃষ্টিভঙ্গিগত পার্থক্য রয়েছে। সম্মেলনের এই দিকটি মাথায় রেখেই সুইডিশ প্রধানমন্ত্রী ফ্রেডরিক রিনফিল্ড রাতভর আলোচনা শেষে বলেছেন আমরা সম্মেলনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আমাদের সাধ্যমত চেষ্টা করব।
আলোচনায় এ পর্যন্ত নেতারা বিশ্বের তাপমাত্রা বৃদ্ধি ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সীমাবদ্ধ রাখার প্রাথমিক খসড়া প্রস্তাবসহ দরিদ্র দেশগুলোকে ১০ হাজার কোটি ডলার জলবায়ু তহবিল সরবরাহে রাজি হয়েছেন।
তবে সম্মেলনে বিশ্বের তাপমাত্রা বৃদ্ধি ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে সীমিত রাখার ব্যাপারে ব্যাপকভিত্তিক চুক্তি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। চূড়ান্ত কোনও চুক্তিতে দরিদ্র দেশগুলোর জন্য ২০২০ সাল নাগাদ বছরে ১০ হাজার কোটি ডলারের সঙ্গে আরও ৩ হাজার কোটি ডলার জলবায়ু তহবিল যোগ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
উন্নয়নশীল দেশগুলোর আলোচকরা রয়টার্সকে বলেছেন, ধনী দেশগুলো ২০৫০ সালের মধ্যে কার্বন নির্গমন ৮০ শতাংশ কমানোর প্রস্তাব করছে। কিন্তু উন্নয়শীল দেশগুলো এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে।
তবে ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী কোপেনহেগেন সম্মেলন অত্যন্ত ফলপ্রসূ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেন, বিশ্বে গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণের জন্য সবচেয়ে বেশি দায়ী যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সরকারপ্রধানেরা এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন। এ দুটি দেশের সরকারপ্রধানদের অংশগ্রহণ দুই সপ্তাহব্যাপী এই সম্মেলনের সফল সমাপ্তিতে অবদান রাখতে পারে বলে আশা করছেন তিনি।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...