ঢাকা-চট্টগাম মহাসড়কে ৬০ কি:মি: দীর্ঘ যানজটে চরম যাত্রী ভোগান্তি

এম আহসান হাবীব: ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে লরী দূর্ঘটনা এবং মহাসড়কের কয়েকটি স্থানে যানবাহন বিকল হয়ে পড়ায় গতকাল শুক্রবার দিনব্যাপি ৫০-৬০ কি:মি: দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে নারী, শিশু, বৃদ্ধ ও অসুস্থ রোগীসহ অসংখ্য যাত্রী চরম দুর্ভোগের শিকার হন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে তিনটায় কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার গুমতা নামক ¯স্থানে মালবোঝাই একটি ট্যাংক লরী উল্টে পড়ায় সড়কের একপাশ দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। গতকাল শুক্রবার সকাল আটটায় পুলিশ রাস্তা থেকে ট্যাংক লরীটি সরালেও এর ফলে সৃষ্ট যানযটের ভোগান্তি পোহাতে হয় ঘন্টার পর ঘন্টা। গতকাল শুক্রবার সারাদিন এই যানজট অব্যাহত ছিল। এছাড়াও চান্দিনা, দাউদকান্দিসহ মহাসড়কের উপরেই বিভিন্ন স্থানে কয়েকটি যানবাহন বিকল হয়ে পড়ায় ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ৫০-৬০ কি:মি: দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ বাজার থেকে চান্দিনা উপজেলার শেষ সীমানা পর্যন্ত এই যানজট ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় হাজার হাজার গাড়ি ঘন্টার পর ঘন্টা রাস্তায় দাড়িয়ে থাকে। কুমিল্লা থেকে সকাল দশটায় ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হওয়া যাত্রী এডভোকেট সালাহউদ্দিন মাহমুদ জানান, চান্দিনা থেকে দীর্ঘ যানজটের কারনে তিনি বিকাল চারটায় ঢাকা পৌঁছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী রুহাইতা তাবাস্সুম রিকা বলেন, দুই ঘন্টার রাস্তা পৌছাতে তার সাড়ে পাঁচ ঘন্টারও বেশি সময় লেগেছে। কুমিল্লার মুরাদনগর থেকে আসা এম্বুলেন্স ড্রাইভার ইমাম হোসেন যানজটের ভোগান্তির কথা জানাতে গিয়ে বলেন, তিনি অপারেশনের রোগী নিয়ে ঢাকা যাওয়ার পথে প্রায় সাড়ে চার ঘন্টা আটকে ছিলেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...