নাঙ্গলকোটে ‘জ্বিন’র হামলায় ৭ জন আহত

নাঙ্গলকোট প্রতিনিধি : অবিশ্বাস্য হলেও সত্য নাঙ্গলকোটে তালগাছ ভীমরুলের বাসায় আগুন দেওয়াকে কেন্দ্র করে ‘জ্বিনের’ সাথে মানুষের সংঘর্ষে ও জ্বিনসহ ১২ জন আহত হয়েছেন।
জানা গেছে, নাঙ্গলকোট উপজেলার চালুয়া ইউনিয়নের বায়রা গ্রামে শাহাদাত হোসেনের তালগাছে ভীমরুলের বাসায় আগুন দেওয়াকে কেন্দ্র করে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে। ১৫ অক্টোবর দুপুরে স্থানীয় কিছু সংখ্যক যুবক ভীমরুলের বাসায় আগুন ধরিয়ে দিয়ে বাসায় পুড়িয়ে দেয়। ঐ রাতে ভীমরুলের বাসা পোড়ানোর সাথে সম্পৃক্তদের বাড়িতে জ্বিনেরা হামলা চালায়। এতে ইদ্রিস ডিলার (৫০), হাশেম (২০), মোতালেব (২৫), কাসেম (২৮), হাসান (২২), কামাল (১৮) ও ইয়াসিন (৯) আহত হয়। জ্বিনরা সুষ্ঠু বিচার না করলে আগুনের সাথে জড়িতদের বাড়ি ঘর এবং তাদের ছেলে সন্তানসহ স্ত্রীদের উপর হামলা চালাবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে। তিগ্রস্তরা আতংকিত হয়ে স্থানীয় কওমি মাদ্রাসার মোহতামেম আব্দুল খালেকের কাছে যান। তিনি জ্বিনদের নিয়ে ২০ অক্টোবর সালিশ সভার আয়োজন করেন। সভায় উপস্থিত জ্বিনরা বিজেদের নিতান্ত নিবীহ ও পরপকারী বলে দাবি করে। দীর্ঘ যুক্তিতর্কের পর আবদুল খালেক কাছে যান জ্বিনদের তির বিষয় দুঃখ প্রকাশ করে মা প্রার্থনা করলে জ্বিনরা তা মঞ্জুর করে। জ্বিনরা বলেছেন ভীমরুলের বাসায় আগুনে ৫ জ্বিন গুরুতর আহত হয়। কাশ্নিরী আঙ্গুর বিতরণের মধ্য দিয়ে সমঝোতার বৈঠকের সমাপ্তি ঘটে। জ্বিনরা এই আঙ্গুর বিতরণ করেন্ বৈঠকে প্রায় তিন শথাধিক মানুষের সমাগম ঘটে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...