BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
Home / প্রচ্ছদ / কুমিল্লা জেলা / দেবিদ্বারে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা! অবিলম্বে প্রত্যাহারে সাংবাদিকদের আল্টিমেটাম
index

দেবিদ্বারে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা! অবিলম্বে প্রত্যাহারে সাংবাদিকদের আল্টিমেটাম

ওমর ফারুক সরকার :–

দেবিদ্বারে এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে কুমিল্লার আদালতে চাঁদাদাবীর মামলা দায়ের করেছেন বরখাস্তকৃত স্কুল শিক্ষক। হয়রানী মূলক মিথ্যা মামলা দায়ের’র সংবাদে দেবিদ্বারের সাংবাদিক মহলসহ বিভিন্ন মহলে নিন্দা ও ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।
সোমবার কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে দেবিদ্বার রেয়াজ উদ্দিন মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র সহকারী শরীরচর্চা শিক্ষক বর্তমানে নারী কেলেঙ্কারীর অপরাধে অভিযুক্ত হয়ে প্রায় ৬মাস ধরে বরখাস্তে থাকা মোঃ রবিউল হাসান একলক্ষ টাকা চাঁদা দাবীর অভিযোগ এনে, দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার দেবিদ্বার প্রতিনিধি মোঃ আক্তার হোসেন’র বিরুদ্ধে ওই মামলা দায়ের করেন।
সাংবাদিক আক্তার হোসেন’র বিরুদ্ধে হয়রানী মূলক মিথ্যা মামলা দায়ের’র সংবাদে স্থানীয় ইলেক্ট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সংবাদকর্মীসহ সকল মহলে তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় উঠে। ওই মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে ‘দেবিদ্বার সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম’র সকল সংবাদ কর্মীরা মঙ্গলবার বিকালে এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। ‘দেবিদ্বার সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম’র সভাপতি এবিএম আতিকুর রহমান বাশার’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সাংবাদিক আক্তার হোসেন’র বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা দায়েরে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে, নারী কেলেঙ্কারীর অপরাধে অভিযুক্ত হয়ে প্রায় ৬মাস ধরে বরখাস্তে থাকা মোঃ রবিউল হাসানকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত এবং মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার সহ তার ইন্দনদাতাদের আইনের আওতায় আনার জোর দাবী জানান। আগামী ৭দিনের মধ্যে মামলা প্রত্যাহার না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে নামারও হুমকী দেন সাংবাদিকরা।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, দেবিদ্বার রেয়াজ উদ্দিন মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র সহকারী শরীরচর্চা শিক্ষক মোঃ রবিউল হাসান তার স্ত্রী-সন্তান বিদ্যমান থাকা অবস্থায় এক কলেজ ছাত্রীকে ফুসলে নিয়ে পালিয়ে যায়। বেশ কিছুদিন নিরুদ্বেষ থাকায়, ওই ঘটনায় পালিয়ে যাওয়া কলেজ ছাত্রীর পরিবার এবং অভিযুক্ত শিক্ষক মোঃ রবিউল হাসান’র স্ত্রী সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত অভিযোগ করেন।
বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি সাবেক মন্ত্রী ও এমপি এ,এফ, এম, ফখরুল ইসলাম মূন্সী অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে তাৎক্ষনিক ওই বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সদস্য আব্দুল মান্নান মোল্লাকে আহবায়ক এবং বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ’র অপর সদস্য মোঃ হাসান ইমাম ও উক্ত বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ অলিউল্লাহ খান’কে সদস্য করে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ৭দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন প্রেরনের নির্দেশ দেন।
ওই তদন্ত কমিটি নারী কেলেঙ্কারীর অভিযোগের সত্যতাসহ তাকে (অভিযুক্ত শিক্ষক মোঃ রবিউল হাসানকে) ঐতিহ্যবাহী উক্ত বিদ্যালয় থেকে স্থায়িভাবে প্রত্যাহারের সুপারিশ করেন। ওই রিপোর্ট প্রাপ্তির পর বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি সাবেক মন্ত্রী ও এমপি এ,এফ, এম, ফখরুল ইসলাম মুন্সী’র নির্দেশে অভিযুক্ত শিক্ষককে প্রথমে কারন দর্শানোর নোটিশ করেন। তার জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় বেতন ভাতাদী বন্ধসহ তাকে সাময়িক অব্যাহতি প্রদান করেন।
বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি সাবেক মন্ত্রী ও এমপি এ,এফ, এম, ফখরুল ইসলাম মূন্সী বলেন, অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে অতিতে অন্তত: ৫টি বিদ্যালয়ে নারী ক্যালেঙ্কারীর অভিযুক্ত হয়ে বিতাড়িত হয়েছে। আমার বিদ্যালয়ে শিক্ষিকা ও ছাত্রী রয়েছে তাদের নিরাপত্তার স্বার্থে তাকে এই বিদ্যালয়ে রাখা নিরাপদ নয়। এব্যাপারে কোন আপোষ নেই প্রয়োজনে আদালতে দাড়াতেও প্রস্তুত আছি।
এব্যাপারে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার দেবিদ্বার প্রতিনিধি মোঃ আক্তার হোসেন বলেন, ১নভেম্বর সকাল ১০টায় অভিযুক্ত শিক্ষককে মারধর কিংবা চাঁদাদাবীর কোন ঘটনাই সত্য নয়। নারী কেলেঙ্কারীর অভিযোগে অভিযুক্ত হয়ে গত প্রায় ৩মাস পূর্বে শিক্ষক মোঃ রবিউল হাসান বিদ্যালয়ে এসে যথানিয়মে কার্যসম্পাদন করায় আমি পেশাগত দায়িত্ব পালনের স্বার্থে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সরকারের নিকট শুধু জানতে চেয়েছি নারী কেলেঙ্কারীর অভিযোগে বরখাস্ত হওয়া শিক্ষক কর্মস্থলে কিভাবে কাজ করছেন। একই দিন অভিযুক্ত শিক্ষক রবিউলকে দেবিদ্বার থানা গেইট ‘সংলগ্ন অনন্ত জিডিটাল ষ্টুডিও’র সামনে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ’র সদস্য মোঃ হাসান ইমাম সহ অন্তত: ১৫/২০জন স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তির উপস্থিতিতে বরখাস্ত স্বত্বেও বিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালনের বিষয়টি জানতে চাই।
বিদ্যালয়টি সরকারী ঘোষনার পর সভাপতির নির্দেশ অমান্য করে একটি বিশেষ মহল ওই অভিযুক্ত শিক্ষককে পূনর্বহাল করার পায়তারার সংবাদ পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই এবং সংবাদ পরিবেশন করতে সাক্ষাৎ নিচ্ছিলাম। এছাড়া এস,এস,সি পরীক্ষার ফরম পুরনে অতিরিক্ত টাকা আদায় হচ্ছে মর্মে সম্প্রতি যে সংবাদ পরিবেশন করেছি তার তালিকায় রেয়াজ উদ্দিন মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের নাম থাকায় প্রধান শিক্ষকসহ একটি মহল ক্ষুব্ধ ছিল। ধারণা করছি এসকল কারণেই আমার বিরোদ্ধে হয়রানী মূলক এ মামলাটি দায়ের হয়ে থাকতে পারে।
এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট অভিযুক্ত শিক্ষক মামলার বাদী মোঃ রবিউলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাওয়া যায়নি। তবে দেবিদ্বার রেয়াজ উদ্দিন মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সরকার বলেন, সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের’র বিষয়ে আমি জানতামনা। বিষয়টি গত রাতে স্কুল গভর্নিং বডির এক সদস্য থেকে শোনেছি। অভিযুক্ত শিক্ষক বিদ্যালয়ে আসেননা। তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বেতন ভাতাদিও বন্ধ। কর্মস্থলে আসার প্রশ্নই উঠেনা।
অভিযুক্ত শিক্ষক রবিউলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্তে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান আব্দুল মান্নান মোল্লা বলেন, অভিযোগের সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে শিক্ষাকতা থেকে অব্যাহতি দিতে সুপারিশ করেছি। তাছাড়া অতিতে তার বিভিন্ন কর্মস্থলেও একই নারী ক্যালেঙ্কারীর অভিযোগ পেয়েছি।
প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক সৈয়দ খলিলুর রহমান বাবুল, মোঃ এনামুল হক, এটিএম সাইফুল ইসলাম মাসুম, হাজী মামুনুর রশীদ, ওমর ফারুক সরকার, এসএম মাসুদ রানা, ফখরুল ইসলাম সাগর, এমএ হালিম, শাহীন আলম, আবুল বাশার, মোহাম্মদ আলী সুমন প্রমূখ।

Check Also

images

মুরাদনগরে পুত্রের হাতে পিতার মৃত্যু

মো: মোশাররফ হোসেন মনির, মুরাদনগর :– কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় পুত্রের সুচালো অস্ত্রের আঘাতে বাবার মৃত্যু ...