BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
Home / প্রচ্ছদ / কুমিল্লা জেলা / দাউদকান্দির খিদমা ডিজিটাল হসপিটাল বন্ধের নির্দেশ
344555666

দাউদকান্দির খিদমা ডিজিটাল হসপিটাল বন্ধের নির্দেশ

দাউদকান্দি প্রতিনিধি :–

কুমিল্লার দাউদকান্দির খিদমা ডিজিটাল হসপিটাল বন্ধের নির্দেশদাউদকান্দির গৌরীপুর বাজারের খিদমা ডিজিটাল হসপিটালের সকল সেবা কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। হাসপাতালটির সেবা কার্যক্রমে অনিয়ম ও লাইসেন্স না থাকায় কুমিল্লা সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মজিবুর রহমানের স্বাক্ষরিত চিঠির মাধ্যমে এ নির্দেশনা জারী করা হয়। চিঠিতে বলা হয়, হাসপাতাল পরিচালনার বৈধ লাইসেন্স বা অনুমতি পত্র নেই। লাইসেন্স বা অনুমতি পত্র ব্যতিত হাসপাতাল চালু রাখা বেআইনি দন্ডযোগ্য অপরাধ। হাসপাতালের অডিটডোর ও ইনডোর স্বল্প পরিসরের, ও.টি রুম খুবই ছোট, ওয়াশ রুম নেই এবং পোষ্ট অপারেটিভ রুমটি মান সম্মত নহে। ডাক্তার ও নার্সদের বসার রুম নেই, তাদের ডিউটি রোষ্টার, ও.টি রেজিষ্টার ও রোগী ভর্তির রেজিষ্টার নেই। চিঠিতে আরো বলা হয়, গত ১৪ সেপ্টেম্বর প্রসূতি শাহিনা আক্তার হাসপাতালে ভর্তি হওয়া থেকে শুরু করে অপারেশন করা পর্যন্ত কোন ডাক্তার কর্তৃক রোগীর ব্যবস্থা পত্র পাওয়া যায়নি, রোগীর ফলোআপ নেই এবং অস্ত্রোপচারের পূর্বে রোগীর কোন প্রকার পরীক্ষা বা চেকআপ এর কাগজ পত্র পাওয়া যায়নি। সম্পূর্ণ অ-ব্যবস্থানার মধ্যে হাসপাতালে উক্ত প্রসূতির অস্ত্রোপচার করা হয়। যা ছিল সম্পূর্ণ অনৈতিক ও বেআইনী। হাসপাতালে দক্ষ ও অভিজ্ঞ জনবলের অভাব রয়েছে। হাসপাতালের চিকিৎসা সামগ্রী নিন্ম মানের ও প্যাথলজি (ল্যাবঃ) সার্ভিস মান সম্মত নয়। হাসপাতালের সেবা কার্যক্রম মোটেই সন্তেষজনক নহে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীদের সহিত প্রতারণা করছেন এবং সরকারী আইন ও নিয়মাবলী ভঙ্গ করছেন। এমতাবস্থায় খিদমা হাসপাতালের সকল সেবা কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন কুমিল্লা সির্ভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মজিবুর রহমান।
এ ব্যাপারে দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জালাল হোসেন বলেন, সিভিল সার্জন কর্তৃক নির্দেশনা পেয়ে আমি খিদমা হসপিটালে গিয়ে সেবা কার্যক্রম বন্ধের দির্দেশনা দিয়েছি। এ নির্দেশের ব্যত্যয় ঘটলে আইনগত ভাবে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। উল্লেখ্য গত ১৪ সেপ্টেম্বর রাতে গৌরীপুর খিদমা হসপিটালে ভুল চিকিৎসায় মা ও নবজাতকের মৃত্যু হয়। ভুল চিকিৎসার অভিযোগে বিক্ষুদ্ধ রোগীর স্বজনরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ডাক্তারের শাস্তি দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। নিহত রোগী গৃহবধূ শাহিনা আক্তার (৩২) দাউদকান্দি পৌরসভার দক্ষিণ সতানন্দী গ্রামের প্রবাসী সেলিম মিয়ার স্ত্রী এবং তার নবজাতক কণ্যা শিশু। নিহতের স্বজনরা জানায়, শাহিনা আক্তারকে সিজিরিয়ানের মাধ্যমে বাচ্চা ডেলিভারির জন্য গৌরীপুর বাজারের খিদমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। রাতে ডাঃ মোঃ সরফরাজ হোসেন খান রোগীকে অজ্ঞান করার পর ডাঃ শেখ হোসনেয়ারা ও নার্স কামরুল নাহার সিজারিয়ানের মাধ্যমে বাচ্চা ডেলিভারি করান। সিজিরিয়ানের সময় নবজাতকের মৃত্যু হয় এবং মহিলার রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় দুইজনকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। পথিমধ্যেই গৃহবধূ শাহিনা আক্তার মারা যায়। স্বজনরা মা ও মেয়ের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে খিদমা হাসপাতাল ভাংচুরের চেষ্ঠা করলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে পুলিশ লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লায় পাঠায়। এ সংবাদটি জাতীয় ও আঞ্চলিক বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে প্রকাশ পায়। পত্রিকায় সংবাদটি প্রকাশিত হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট প্রশাসন তদন্ত করে লাইসেন্স বিহীন এ হাসপাতালের ব্যাপক অনিয়ম পেয়ে সকল চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশা জারী করেন।

Check Also

debidwar-comilla-joinpori-hijor-pic-03-12-2016-3

বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করতে হবে—জৈনপুরী পীর

মোঃ আক্তার হোসেনঃ– আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ্ সুফি সাইফুল হাফিজ সিদ্দিকী জৈনপুরী আল কোরাইশী (বড় ...