BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
Home / সাহিত্য / অন্যান্য / রেলওয়ের সেবার মান বৃদ্ধি করা প্রয়োজন
Train

রেলওয়ের সেবার মান বৃদ্ধি করা প্রয়োজন

 

—মো. আলা উদ্দিন

গত ২০১২ সালের ১ অক্টোবর থেকে বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিবহনে ৫০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে। সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় মন্ত্রীসভা থেকে এই ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব অনুমোদন করার পর রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ভাড়া বৃদ্ধি কার্যকর করে। এই ভাড়া বৃদ্ধির পক্ষে রেল কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন যুক্তি দেখিয়েছে। যুক্তিতে তারা বলেছে, ১৯৯২ সালের পর থেকে ২০১২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্র্যন্ত রেলের যাত্রী ও মালামাল পরিবহন বাবদ ভাড়া আর বৃদ্ধি করা হয়নি। অথচ সে সময় রেলের জ্বালানীর দাম ৪২০ শতাংশ এবং যন্ত্রাংশের দাম ৩৬০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ কারনে প্রতিনিয়ত রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে লোকসান গুনতে হয়েছে। গত ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে রেলকে অবহেলা ও উপেক্ষা করা হয়েছে। দুর্নীতি ও লুটপাট রাজত্বের মাধ্যমে সবচেয়ে নিরাপদ ও জনপ্রিয় এ পরিবহন ব্যবস্থাকে ধ্বংসের সন্নিকটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। গত চার দশকে বিদেশি সহযোগিতায় দেশব্যাপী সড়ক ব্যবস্থা সম্প্রসারিত করা হলেও সাধারন মানুষের নিরাপদ ও আরামদায়ক গণপরিবহন বাংলাদেশ রেলওয়ে বিভাগ সংকুচিত হয়েছে। আমাদের দেশের মত একটি ঘনবসতি পূর্ণ দেশে গণপরিবহনের ক্ষেত্রে ব্যাপক নৈরাজ্যের সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলাফল আমাদের জন্য মোটেই ভালো নয়। এদিকে বাস-মিনিবাস মালিকরাও সংঘবদ্ধ ভাবে বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিবহনকে ধ্বংস করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। বড় বড় বাস কোম্পানীর মালিকরা অনেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত। আওয়ামীলীগ ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে তাদের অনেকের ঘনিষ্ট সর্ম্পক রয়েছে। কোন সরকারই গত চার দশকে বাংলাদেশ রেলওয়ের উন্নয়নে তেমন কোন উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারেনি। এছাড়া ব্রিটিশ ও পাকিস্থানী ঔপনিবেশিকদের কাছ থেকে আমরা রেলওয়ের যে মজবুত কাঠামো পেয়েছিলাম রেল কর্তৃপক্ষ তাও ধরে রাখতে পারেনি। সড়ক পথের পরিবহন ব্যবসার স্বার্থ সংরক্ষন করতে গিয়ে ইতিমধ্যে অনেক রেলরুট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে কালুকালি-ভাটিয়াপাড়া, পাঁচড়িয়া-ফরিদপুর, রুপসা-বাগেরহাট উল্লেখ যৌগ্য। সম্প্রতি আরও কয়েকটি রেলরুটেও ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি খবুই দূর্ভাগ্যজনক। সম্পূর্ণ অসম্পূর্ণ অপরিকল্পিত ও ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে উল্লেক্ষিত রেলরুট গুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এসব রেলপথের সাথে দেশের অসংখ্য মানুষের বিভিন্ন স্মৃতি জড়িয়ে আছে।
নিরাপদ ও জনপ্রিয় এ পরিবহন খাতের সব ধরনের অনিয়ম ও দূর্নীতি নির্মূল করা দরকার। রেলমন্ত্রী রেলওয়ে বিভাগের বিভিন্ন অনিয়ম দেখে রীতিমতো ক্ষুব্ধ। সাম্প্রতিককালে তিনি ট্রেনে একাধিক যাত্রীর কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং টিকেট কালোবাজারি হওয়ার অভিযোগ পেয়েছেন। রেলমন্ত্রী বলেছেন, রেলের টিকিট কালোবাজারি হচ্ছে। টিকেল কালোবাজারিরা ইতিমধ্যে বিশাল সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। আমি তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করব। মন্ত্রীর এ বক্তব্যের মাধ্যমে রেলওয়ের বর্তমান অবস্থা বর্তমান অনুমান করা যায়।
অতীতের কথা ভূলে গিয়ে এখন রেলওয়ে বিভাগের উন্নয়ন করা দরকার। এদিকে ২০১২ সালের ১ অক্টোবর রেলওয়ে পরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে। কিন্তু ভাড়া বৃদ্ধির প্রায় ৩ বছর অতিবাহিত হতে চললেও রেলওয়ের সেবার মান এখনো বৃদ্ধি করা হয়নি। যা যাত্রীদের সাথে একটি বড় প্রতারণা বলে আমি মনে করি। এদিকে সিডিউল মেনে ট্রেন আসা যাওয়া করছে না। ট্রেনের ভেতর র্দূগন্ধ ও ছার পোকার আস্তানা। ফলে ট্রেন ভ্রমনে যাত্রীদের পোহাতে হয় চরম ভোগান্তি। তাই যেহেতু রেলওয়ে পরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে সেহেতু যাত্রীদের সুবিধার্থে মানুষের প্রিয় এ পরিবহনে অনতিবিলম্বে সেবার মানও বৃদ্ধি করা হোক।
==============================
লেখকঃ মো. আলা উদ্দিন
সাংবাদিক, লেখক ও সংগঠক
সভাপতি- নাঙ্গলকোট রিপোর্টাস ক্লাব
সাধারণ সম্পাদক- নাঙ্গলকোট লেখক ফোরাম
নাঙ্গলকোট, কুমিল্লা।
prodipnews@gmail.com

Check Also

debidwar-comilla-joinpori-hijor-pic-03-12-2016-3

বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করতে হবে—জৈনপুরী পীর

মোঃ আক্তার হোসেনঃ– আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ্ সুফি সাইফুল হাফিজ সিদ্দিকী জৈনপুরী আল কোরাইশী (বড় ...