Home / বিশেষ প্রতিবেদন / কবি সূধীর দাস আর নেই

কবি সূধীর দাস আর নেই

ব্রাহ্মণবাড়িয়া / ১৬ অক্টোবর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)———-
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার কালীকচ্ছের কৃতি সন্তান খ্যাতিমান কবি সুধীর দাস (৮২) আর নেই। গত রোববার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ভারতের কলকাতায় কবির ছেলে ডাঃ বিপ্লব দাসের বাসভবনে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ১ মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, তিনি দীর্ঘ দিন যাবত কিডনি ও উচ্চ রক্ত চাপ রোগে ভুগছিলেন। এদিকে খ্যাতিমান এই কবির মৃত্যুর খবরে সরাইল উপজেলায় সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে আসে।
উপজেলার কালিকচ্ছ ইউনিয়নের নন্দীপাড়া গ্রামের যতীন্দ্র দাসের পুত্র কবি সূধীর দাস ছোট কাল থেকেই মেধাবী ছিলেন। বহুবিধ প্রতিভার অধিকারি এই কবি কালিকচ্ছ পাঠশালা উচ্চ বিদ্যালয়ের বাংলা বিষয়ের শিক্ষক ছিলেন। পরে তিনি একই বিষয়ে বাকাইল উচ্চ বিদ্যালয়েও শিক্ষকতা করেছেন। তিনি একজন ভাল পন্ডিত ব্যক্তি ছিলেন। তিনি নিজ এলাকায় হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা সেবায় যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছিলেন। জীবদ্দশায় কবির লেখা- রোদ বাদলের অনুবাদ ও রম্যতায় রবীন্দ্রনাথ নামক দু’টি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর লেখা আরো ৪০টির অধিক কাব্যগ্রন্থের পান্ডুলিপি প্রকাশের অপেক্ষায় আছে। স্বাধীনতার পর সূধীর দাস সরাইল-নাসিরনগর মৎসজীবি সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এলাকার মৎসজীবিদের জন্য শেখ মজিবুর রহমান সূধীর দাসকে দুইশ’টি ডিঙ্গি নৌকা দিয়েছিলেন। কবি নৌকা গুলো স্থানীয় জেলেদের মাছ চাষের কাজে ব্যবহার করতে দিতেন। তিনি উত্তর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাহিত্য সংসদের সম্পাদক, সাহিত্য ভূবনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাহিত্য একাডেমির আজীবন সদস্য ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য এড. জিয়াউল হক মৃধা, সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক আব্দুল হালিম, সরাইল প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খান ও সম্পাদক বদর উদ্দিন।

Check Also

image-546465

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আলোচনার ভিত্তিতে সংশোধনের আশ্বাস আইনমন্ত্রীর

প্রস্তাবিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ছয়টি ধারাকে স্বাধীন সাংবাদিকতার পথে বাধা বলে আখ্যায়িত করেছে সম্পাদক পরিষদ। ...

Leave a Reply